সোমবার, ১৪ Jun ২০২১, ০২:৪০ অপরাহ্ন

শিরোনাম:

Welcome To Our Website...

দৈনিক একুশের কন্ঠ: সংবাদ দাতার সাথে মেম্বার পদপ্রার্থী শেখ মোহাম্মদ বাহার-এর একান্ত সাক্ষাৎকার

দৈনিক একুশের কন্ঠ: সংবাদ দাতার সাথে মেম্বার পদপ্রার্থী শেখ মোহাম্মদ বাহার-এর একান্ত সাক্ষাৎকার

মাধবপুর (প্রতিনিধি)হবিগঞ্জঃ

 

দৈনিক একুশের কন্ঠ: উপজেলা সংবাদ দাতার সংঘে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার ৯নং নোয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী শেখ মোহাম্মদ বাহার-এর একান্ত সাক্ষাৎকার

 

কেমন আছেন পাশের বাড়ির মানুষটি? এমন প্রশ্ন করার মতো সময়ও আমাদের নেই। ক্রমেই আমরা যান্ত্রিক হয়ে যাচ্ছি, এতে সমাজে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। আমাদের চিন্তার পরিবর্তর জরুরি।

 

একটি কথা মনে রাখা ভালো- সমাজ নিয়ে ভাবনার বয়স লাগে না, প্রয়োজন চিন্তা ও মানসিকতা। শুধু নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত থাকলে সমাজের কোন পরির্তন আসবে না। ভাবতে হবে চারপাশের মানুষ নিয়ে। পরিবর্তন ছাড়া সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। যখন সমাজের পরিবর্তন হয়, তখন কুসংস্কার সমাজ থেকে দূরিভূত হয়। শিক্ষা, সেবা, কমর্সংস্থান ও উন্নয়ন নিয়ে যখন ভাবেন কেউ তখন সমাজ আদি সমাজ ব্যবস্থার কুসংস্কার ছেড়ে নতুন সত্য, সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন সংস্কারমূলক সমাজ সৃষ্টির পথ আলোকিত হয়। সকল পরিবর্তনের জন্য প্রথমে প্রয়োজন তারুণ্য। যখন আত্মকেন্দ্রিক মনোভাব পুরো সমাজের জন্য ভয়ঙ্কর পরিণতি ডেকে আনছে, তখনই কিছু তরুণ কল্যাণমুখী কাজে নিয়োজিত করছেন, সমাজ, দেশ ও রাজনীতির ইতিবাচক পরিবর্তন করার জন্য অদম্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

 

অদম্য এক তরুণ্যের প্রতিক শেখ মোহাম্মদ বাহার ।

 

জন্ম: হবিগঞ্জ জেলা মাধবপুর উপজেলা ৯নং নোয়াপাড়া ইউনিয়ন শাহপুর গ্রামে। জানাগেছে বর্তমানে তিনি নিঃস্বার্থভাবে সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে আশপাশের মানুষদের জন্য কিছু করতে সচেষ্ট হন। এমন মনোভাব নিয়েই গড়ে তুলেছেন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নিউ মর্ডান সমাজ কল্যাণ ক্লাব।’ যে সংগঠন সামাজিক বৈষম্য কমিয়ে আনার জন্য কাজ করছে। শেখ মোহাম্মদ বাহার আত্মকেন্দ্রিক না থেকে সমাজ কিংবা দেশের জন্য সমৃদ্ধি বয়ে আনার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন। (২৯ মে) ২০২১ ইংরেজি সকাল ১১ ঘটিকা সময় তার সঙ্গে কথা হলো সামনের ইউ/পি নির্বাচন সহ নানা বিষয়ে।

 

 

শেখ মোহাম্মদ বাহার – আপনার স্বপ্ন সম্পর্কে জানতে চাই ।

 

আমাদের সমাজের দিকে তাকালে প্রতিনিয়ত আমরা দেখতে পাই বিভিন্ন ধরনের বৈষম্য, যা অতি দুঃখের হলেও সত্য। আজকের আধুনিক বিশ্বের ছোঁয়া সত্ত্বেও আমরা সেকেলে সমাজ ব্যবস্থা হতে বেরিয়ে আসতে পারিনি। প্রাচীন সমাজ ব্যবস্থার কুসংস্কার, বৈষম্য ও অবমূল্যায়ন আমাদেরকে কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে। শ্রেণি বৈষম্যের দিকে তাকালে দেখা যায় সমাজের একটি গরিব লোক শিক্ষিত, মেধাবী এবং নেতৃত্ব দেবার মত যোগ্যতা রাখলেও আমাদের ধনতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থা এই লোকটিকে সুযোগ না দিয়ে তাকে অবমূল্যায়ন করে পিছনে ফেলে রাখে যা আমাদের জাতিকে অন্ধকারে ঠেলে দেয়। পক্ষান্তরে, একজন সম্পদশালী ব্যাক্তি মেধা ও নেতৃত্বের যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও বর্তমানে সমাজ তাকে নেতৃত্বের ভার দেয় যা আমাদের সমাজ ব্যবস্থার জন্য হুমকি স্বরূপ। আমি মনে করি এই সমাজ নিয়ে আমাদেরই ভাবতে হবে। স্বপ্ন দেখতে হবে সমাজ নিয়ে।

 

এছাড়া নারী পুরুষের বৈষম্য, জাতিগত বৈষম্যসহ নানান স্তর ও মাত্রার বৈষম্যে ছেঁয়ে গেছে আমাদের সমাজ। তাই আমি এই আধুনিকতার যুগে দাঁড়িয়ে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে আহ্বান জানাচ্ছি যে আসুন আমরা সকলের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই মিলে এমন একটি বৈষম্যহীন সমাজ গড়ার অঙ্গীকার করি যে সমাজ আমাদের নিয়ে যাবে উন্নতির চরম শিখরে।

 

শেখ মোহাম্মদ বাহার- আপনার সমাজের পরিবর্তন কিভাবে আসতে পারে?

 

মানবতাবোধই পারে সমাজের রূপ বদলে দিতে, তাই আমাদের সবার মধ্যে মানবতাবোধ জাগাতে হবে। একজন মানুষ সঠিক শিক্ষাগ্রহণ না করলে তার প্রভাব সমাজের ওপর পড়ে। সে কারণে আমাদের সঠিক শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে” পাশাপাশি মাদকদ্রব্য সেবন কারি ও সমাজে অযোগ্য ব্যক্তিরা রায় দেওয়া কারির হাত থেকে নেতৃত্ব কেরে নিতে হবে ।

 

শেখ মোহাম্মদ বাহার- আপনি মানুষের পাশে কিভাবে দাঁড়াতে চান?

 

আমি সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই কোনো কিছু বিনিময়ে নয়। এখানে গুরুত্ব পায় ইচ্ছা এবং কাজ করার স্পৃহা। যেখানে থাকি যেভাবেই থাকি যে পেশায়ই থাকি মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চাই সবসময়। আমি যা করি গরীব দুঃখী মানুষদের ভালোবেসেই করি। এ ধরণের কাজ করে আমি আনন্দ পাই। সেজন্য আমি কিছু সংখ যুবকদের নিয়ে (২০১২ সালে) সাজিয়ে তুলেছিলাম , নিউ মর্ডান সমাজ কল্যাণ ক্লাব- বর্তমানে রেজিস্ট্রার ভুক্ত । এই সংঘঠনের সাধারণ সম্পাদকের দ্বায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আমি নোয়াপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক । সহ বিভিন্ন সামাজিক সংঘঠনে সাথে জড়িত , এই গুরুত্বপূর্ণ দ্বায়িত্বে থাকা পাশাপাশি সমাজে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কল্যাণমূলক কাজ করে যাচ্ছি। আমি একটি সুখী ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মানে সরকারকে সাহায্য করতে চাই।

 

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে ঘর বন্দী কর্মহীন মানুষের পাশে আমার সাধ্য অনুযায়ী কিছু দিয়ে না দিয়ে তাদের ঘরের দরজায় দাড়িয়েছি তার বহু প্রমাণ আমার নির্বাচনী এলাকার জনগণ , শুধু করোনা নয় বর্তমানেও তাদের পাশে আছি ভবিষ্যতেও থাকবো।

 

শেখ মোহাম্মদ বাহার-শুনেছি আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আপনি ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী হবেন

এই বিষয়ে কিছু বলার আছে কিৎ ।

 

নির্বাচনের বিষয়ে আমার কোন লোভ বা পিপাষা নেই । মানব সেবা করতে গিয়ে যে কোন মোকাবেলায় আমি প্রস্তুত রয়েছি । সচেতন জনসমাজ যদি মনে করেন যে, উক্ত পদে আমাকে তাদের প্রয়োজন তাহলে আমার কোন বাধা বা আপত্তি নেই । আর আল্লাহ যদি আমাকে ঐ পদ-মর্যাদা দান করে তাহলে আমার প্রথম লক্ষ ও চেষ্টা থাকবে ৯নং ওয়ার্ডকে একটি মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তোলা । এলাকাবাসী আমার স্বপ্ন এলাকাবাসীর সেবা করা ও সুখে দুঃখে পাশে থাকা হবে আমার দ্বায়িত্ব ।

 

 

ধন্যবাদ শেখ মোহাম্মদ বাহার ।

 

মোঃ হাউশ মিয়া ★ দৈনিক একুশের কন্ঠ-মাধবপুর প্রতিনিধি

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019

Design BY POPULARHOSTBD