সোমবার, ১৪ Jun ২০২১, ০২:২৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম:

Welcome To Our Website...

স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপিতঃ

স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদযাপিতঃ

তন্ময় দেবনাথ স্টাফ রিপোর্টার রাজশাহী জেলাঃ

 

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ

এ্যাসোসিয়েশন ভবন,অলোকার মোড়-রাজশাহী ।

বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকারের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিন, “ঐতিহাসিক-৭ মে ”

 

আজ ঐতিহাসিক ৭ মে । বাংলাদেশের গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষের কাছে এদিন একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ স্মরণীয় দিন । ২০০৭ সালের ৭ মে তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকার ঘোষিত জরুরী অবস্থা চলাকালীন সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসা শেষে শত প্রতিকুলতাকে উপেক্ষা করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে বাংলাদেশে ফিরে আসেন গণতন্ত্রের মানসকন্যা বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা । সেই সময় জননেত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশে ফিরে আসার উপর তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকার এক অবৈধ নিষেধাজ্ঞা জারি করে । বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না দেওয়ার এক অশুভ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয় তদানীন্তন তত্বাবধায়ক সরকার । জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সন্তান জননেত্রী শেখ হাসিনা তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকারের বেআইনী নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে দেশে ফিরে আসার ঘোষণা দেন । সেই অবৈধ নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদের ঝড় উঠে বিশ্বব্যাপী। স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক দৃঢ়তা, সাহসিকতা এবং গণতান্ত্রকামী দেশবাসীর চাপের মুখে তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকার সেই অবৈধ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হন । ৭ মে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ঢাকায় ফিরে এলে এদেশের লাখো লাখো বিপ্লবী জনতা তাঁকে সাদর অভ্যর্থনা জানায়। সেদিন ঢাকা বিমানবন্দর থেকে আনন্দ মিছিল শোভাযাত্রা সহযোগে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু ভবনে নিয়ে আসে এদেশের বঙ্গবন্ধু আদর্শের বিপ্লবী জনতা ।

দেশে ফিরেই জনগণের হারানো গণতান্ত্রিক অধিকার পুনরুদ্ধারে-পুনরুত্থানে এবং পুণঃ প্রতিষ্ঠায় জননেত্রী শেখ হাসিনা শুরু করেন নবতর সংগ্রাম । বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বিপ্লবী নেতৃত্বে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে সুসংগঠিত ও ঐক্যবদ্ধ হয় সমগ্র দেশবাসী। তারই প্রেক্ষিতে তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকার ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে ২০০৭ সালের ১৬ জুলাই গণতন্ত্রের মানসকন্যা বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সাজানো মামলায় গ্রেপ্তার করে।২০০৮ সালের ১১ জুন প্যারোলে মুক্তি পাওয়ার আগপর্যন্ত বাঙালি জাতির পিতার কন্যাকে রাখা হয় কারান্তরীনে ! প্যারোলে মুক্তি পাওয়ার পর চিকিৎসার জন্য বিদেশ যান এবং চিকিৎসা শেষে স্বদেশে ফিরে আসেন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ।

অতঃপর গণতন্ত্রের মানসকন্যা বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সাহসী, বিপ্লবী এবং দুরদর্শী নেতৃত্বে সমগ্র দেশব্যাপী ব্যাপক আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হয় । তীব্র আন্দোলনের মুখে জাতীয় সংসদ নির্বাচন দিতে বাধ্য হয় তৎকালীন জোরপূর্বক রাষ্ট্র ক্ষমতায় চেপে বসে থাকা সেই তত্বাবধায়ক সরকার । ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট ।

 

দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বভার গ্রহণ করেন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা । বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী জেলার সকল সংসদীয় এলাকাতেও ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে বিএনপি-জামায়াত ও বাংলাভাইয়ের দুঃশাসন থেকে রাজশাহীকে মুক্ত করা হয় এবং সবক’টি আসনেই আওয়ামী লীগজোট নিরঙ্কুশভাবে বিজয় লাভ করে এবং সেই সংসদ নির্বাচনেই রাজশাহী-র পবা-মোহনপুর সংসদীয় আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের মান্যবর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ মেরাজ উদ্দিন মোল্লা এবং পুঠিয়া-দূর্গাপুর সংসদীয় আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ -এর মান্যবর সাধারণ সম্পাদক জননেতা আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ দারা ।

শুরু হয় এযাবৎ পর্যন্ত সংকটের মধ্যে নিমজ্জমান থাকা জাতিকে অন্ধকারাচ্ছন্ন আবর্ত থেকে বের করে এনে দেশকে জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধামুক্ত-দারিদ্রমুক্ত-সুখী ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলা বিণির্মান ও প্রতিষ্ঠার মহাসংগ্রাম। দিন বদলের অভিযাত্রায় উন্নয়নের মহাসড়কে দুর্বার ও অপ্রতিরোধ্য তরতর গতিতে এগিয়ে চলতে শুরু করে বাংলাদেশ ।

 

বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক সংগ্রাম-আন্দোলন-উন্নয়ন-অগ্রগতি এবং সমৃদ্ধি অর্জনের ইতিহাসে ৭ মে জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন এদেশের গণতান্ত্রিক ইতিহাসে অত্যন্ত তাৎপর্যবহ । বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিন ৭ মে উপলক্ষে সাংগঠনিকভাবে প্রতিবছর বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হলেও এবছর বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে সৃষ্ট অশুভ সংকটে আওয়ামী লীগ সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কর্মসূচি পরিহার করেছে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ ।

 

৭ মে উপলক্ষে বাঙালির চিরঞ্জীব আশা ও অনন্ত অনুপ্রেরণার উৎস জননেত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা পূর্বক রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সর্বজন শ্রদ্ধেয় সভাপতি ও সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ মেরাজ উদ্দিন মোল্লা’র রোগমুক্তি ও দ্রুত সুস্থতা কামনা সহ বিশ্ববাসীকে অশুভ করোনার সংকট থেকে অতিদ্রুত মুক্তি দানের প্রত্যাশা ও কামনায় ঘরে বসেই পরম করুণাময়ের নিকট বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা করার জন্য রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী এবং ভাতৃপ্রতীম সংগঠনের সন্মানিত নেতা-কর্মী-সমর্থকবৃন্দর প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ এর বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ দারা।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু ।

 

বার্তা প্রেরক

সংবাদ সংগ্রহঃ

 

প্রদ্যুৎ কুমার সরকার

দপ্তর সম্পাদক

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019

Design BY POPULARHOSTBD